কিভাবে সময় অপচয় করা বন্ধ করা যায় ( How To Stop Time waste) 





কিভাবে সময় অপচয় করা বন্ধ করা যায় ( How To Stop Time waste) 


আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় হলো কিভাবে সময় অপচয় বন্ধ করা যায় ( How to stop time waste)  ও Never Stop learning. 

সবার আগে আমাদের জানতে হবে টাইম ওয়েস্ট কি?

তার আগে আমাদের জানতে হবে আমরা আমাদের কোন দিক গুলো নিয়ে চিন্তাতে থাকি, আমি বলতে  চাচ্ছি আমরা যদি সময় টুকু অপচয় না করতাম তাহলে আমরা সেই সময়টুকু কোন কাজে ব্যবহার করতাম, আমি আমার টা বলি আমি আমার সব সময়টুকু নিজের Health, Wealth, and Happiness কিভাবে বৃদ্ধি পাবে সেই কাজ গুলো করতাম। 

শুধু আমার না আমরা সবাই চাই আমাদের Health, Wealth, Happiness সব কিছু ঠিক ঠাক থাকুক। আমরা তখনই জীবনে অবসাদ উপলব্ধি করি যখন দেখি আমাদের এই তিনটার যে কোনো একটি ঘাটতি হয়ে যাচ্ছে। 

আপনি যেই কাজই করেন না কেনো সবার প্রথমে নিজেকে প্রশ্ন করুন আপনি যেই কাজটি  করতে যাচ্ছেন এটা কি কোনোভাবে আপনার লাইফ কে বেটার  করে তুলতে সাহায্য করবে। এটাই হলো সময়ের অপচয় বন্ধ করার প্রধান পদক্ষেপ। যাহাই করুন না কেনো নিজেকে প্রশ্ন করুন Is It make my life better. যদি উত্তর হয় না তাহলে কাজটি করা বন্ধ করে দেওয়া উচিত। 

আপনি যদি এটা জেনে ও কাজটি করেন তাহলে আপনি নিজেই নিজেকে ঠকাচ্ছেন। বিষয় টা ঠিক এমন ধরুন আপনাকে আজ ১ লক্ষ্য টাকা দেওয়া হলো আর বলা হলো আজ সারাদিনের মধ্যেই আপনাকে টাকা টা শেষ করতে হবে। না হলে বাকি টাকা টা আপনার কাছে থেকে নিয়ে নেওয়া হবে। এখন আপনি কি করবেন - হয়তো সারাদিন বিভিন্ন হোটেলে গিয়ে, পার্টিতে গিয়ে, বন্ধু-বান্ধবের সাথে ইচ্ছে মতো উড়িয়ে খরচ করবেন। 

যেটার আনান্দ আপনি তাত্ক্ষণিক নিলেন কালকে আপনার কাছে ওই টাকা টা থাকলো না। আপনি হয়তো ভাবছেন আপনি ঠিকই করেছেন কারণ টাকা টা আজকের মধ্যেই খরচ করতে বলা হয়েছে আর আপনি করেছেন হ্যা আপনি করেছেন কিন্তুু অনেকটা ভুল করেছেন। 

ওই টাকা দিয়ে আপনি কিছু স্বর্নগয়না ও কিনতে পারতেন এতে ও টাকা টা খরচ হতো তবে আপনি পরে সেই টা বিক্রি করে আবার টাকা টা নিজের হাতে পেতেন। 

আমরা সিদ্ধান্ত নিতে সবচেয়ে বড় প্রবলেম এ পরি। আমরা সুদূর চিন্তা করতে চাই না আমরা তাতক্ষনিক সিদ্ধান্ত নিতে ভালোবাসি। 

সময় অপচয় কি - আপনি যদি আপনার বন্ধুদের সাথে বসে বসে গল্প গুজব করেন সেটা ও সময় অপচয় হবে না যদি সেখান থেকে আপনি কিছু শিখতে পারেন যা কি না আপনার লাইফ কে বেটার করবে ভবিষ্যতে। আর এর যদি উল্টো টা হয় তাহলে বলবো আপনি অবশই সময় অপচয় করছেন নিজেকে বিপদে ফেলছেন। 

আমার কথার উদ্দেশ্য হলো আপনি যেটাই করেন না কেনো আপনাকে শিখতে থাকতে হবে, ইংরেজিতে বলা হয় Never Stop Learning. এই মেথড টি খুবই প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ। 

আপনি যখন টিভি দেখছেন সেখানেও আপনাকে খুজতে হবে, ওখান থেকে কোন বিষয় টুকু শিখলে তা আমাদের লাইফে কাজে আসতে পারে। আপনি যদি সংবাদ দেখেন আপনাকে পাঠকের সংবাদ পাঠ করার অসাধারণ দক্ষতা টা মানে কথা বলার ধরন ও অঙ্গ ভঙ্গি টা শিখতে পারেন। কারণ একজন উপস্থাপক হওয়া টা ও বেশ কষ্ট সাধ্য যেটা সবাই পারে না। 

হাপনি রাস্তা, হাট বাজার, খেলার মাঠে সব সময় খুজতে হবে কোন জিনিস আপনার লাইফের সাথে সম্পর্কযুক্ত সেখান থেকে আপনাকে শিখতে হবে, আপনি রাস্তায় চলার সময় সামনের জন কে সালাম দিচ্ছেন, আপনি রং সাইড দিয়ে যাচ্ছেন না তো এগুলো শিখতে হবে। 

বাজারে কেনা কাটার সময় কি আপনি দোকানদারের সাথে ঠান্ডা মাথায় ও বিচক্ষণতার সাথে পণ্য টির দাম দর করতে পারছেন, আপনি ঠকছেন, না ঠকছেন না সেটা ও শিখতে হবে।  

আপনি যদি সারাদিন ধর্ম গ্রন্থ পাঠ করেন শুধু সওয়াবের আশায় যদি সেখান থেকে কিছু না শিখেন তবে সেটা ও আপনার সময় অপচয়। আপনাকে সব সময় মিনিংফুল জিনিসের সাথে থাকতে হবে। সারাদিন টিকটক না দেখে অন্য কিছু দেখা যেতো যা আপনার সামনে কাজে লাগতে পারে। 

আপনাকে একটি scheduling এর মধ্যে দিয়ে চলা দরকার হবে সেখানে আপনি কোনো অজুহাত ব্যবহার করতে পারবেন না 

যেমন আপনাকে প্রতিদিনই একটি গোল সেট করে নিতে হবে আপনি কখন কি করবেন, সকালে উঠে কি আপনি আপনার ফোনটি হাতে নিয়ে দেখবেন কে কয়টা লাইক দিলো নাকি ২০ মিনি এক্সারসাইজ ও মেডিটেশন করবেন যেটা আপনার একটি সুন্দর দিনের শুরু হবে। 

কখন কি কাজ করবেন সেটা একটি কাগজে লিখে ফেলুন দরকার হলে মোবাইলে এলার্ম দিয়ে রাখুন। আপনার লিস্টে এমন অনেক কাজ থাকবে যেটা করতে আপনার প্রতিদিনই ভালো লাগবে না এক্ষেত্রে আপনাকে কাজ গুলোকে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত করবেন ঠিক করুন। 

আজকে হয়তো এক্সারসইজ ৪০ মিনিট করার কথা ছিলো কিন্তুু করতে ভালো লাগছে না নিজেকে বলতে পারেন আজ মাত্র ১০ মিনিট করবো তাই বলে শুরু করে দিন ১০ মিনিট করার পর ও যদি ভালো না লাগে তাহলে ছেড়ে দিন ছেড়ে দেওয়ার আগে আপনার প্রোগ্রেস টার কথা ভাবুন হয়তো আজ আর ১০ টা পুশআপ দিলে মাসেল টা আরো বৃদ্ধি পেতো। 

সব শেষে আবারো বলছি আপনাকে অজুহাত দেওয়া বন্ধ করতে হবে। আপনি কি চান সেটা পাওয়ার জন্য নিজের সর্বোচ্চ টা দিয়ে চেষ্টা করতে হবে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ গলো সময়ের সঠিক ব্যবহার আপনার সময় কেড়ে নেওয়ার জন্য আড্ডা খানা, ইউটিউব,ফেসবুক, অনেক চেষ্টা করবে, তাদের কে সময় দিবেন না নিজের ভবিষ্যতের জন্য নিজের আত্মউন্নয়ন বাড়াতে কাজ করবেন এটি আপনার ব্যাপার এখন। 

Never Stop Learning. 

Post a Comment

Previous Post Next Post